স্বামী স্ত্রী | দাম্পত্য জীবন

স্বামীর পায়ের নিচে স্ত্রীর বেহেশত’ এবং ‘মায়ের পায়ের নিচে সন্তানের বেহেশত’ কোনটি সঠিক?

‘স্বামীর পায়ের নিচে স্ত্রীর বেহেশত’ এবং ‘মায়ের পায়ের নিচে সন্তানের বেহেশত’ কোনটি সঠিক?
➖➖➖➖➖➖➖➖
প্রশ্ন: মানুষকে বলতে শোনা যায় যে, “মায়ের পায়ের নিচে সন্তানের বেহেশত”। আবার এটাও শোনা যায় যে, “স্বামীর পায়ের নিচে স্ত্রীর বেহেশত।” এ দুটি কথার মধ্যে মূলত: কোন হাদীসটি সঠিক দয়া করে জানাবেন।

উত্তর:
💠 “স্বামীর পায়ের নিচে স্ত্রীর বেহেশত” এ কথাটা কোন হাদীস নয়। বরং বানোয়াট কথা। কিন্তু হাদীস হিসেবে আমাদের সমাজে প্রচলিত রয়েছেে!!
তবে স্ত্রীর কাছে স্বামীর সম্মানের কথা হাদীছে এভাবে উল্লিখিত হয়েছে:
لَوْ كُنْتُ آمِرًا أَحَدًا أَنْ يَسْجُدَ لِغَيْرِ اللهِ لأَمَرْتُ الْمَرْأَةَ أَنْ تَسْجُدَ لِزَوْجِهَا وَالَّذِى
نَفْسُ مُحَمَّدٍ بِيَدِهِ لاَ تُؤَدِّى الْمَرْأَةُ حَقَّ رَبِّهَا حَتَّى تُؤَدِّىَ حَقَّ زَوْجِهَا وَلَوْ سَأَلَهَا نَفْسَهَا وَهِىَ عَلَى قَتَبٍ لَمْ تَمْنَعْهُ-
“যদি আমি কাউকে নির্দেশ দিতাম আল্লাহ ব্যতীত অন্যকে সিজদা করার, তাহ’লে স্ত্রীকে নির্দেশ দিতাম তার স্বামীকে সিজদা করার জন্য।” (ইবনু মাজাহ হা/১৮৫৩; সহীহাহ হা/১২০৩।)

💠 ‘মায়ের পায়ের নিচে সন্তানের বেহেশত” হুবহু এ শব্দে বর্ণিত হাদীসটি খুব দুর্বল মতান্তরে বানোয়াট। কিন্তু তার অর্থটি সঠিক- যেমনটি বর্ণিত হয়েছে নিম্নোক্ত হাদীসদ্বয়ে:

🔰 মু‘আবিয়া ইবনু জাহিমা হ’তে বর্ণিত। একদা আমার পিতা জাহিমা রাসূল সা. এর নিকট এসে বললেন,
يَا رَسُولَ اللهِ أَرَدْتُ الْغَزْوَ وَجِئْتُكَ أَسْتَشِيْرُكَ فَقَالَ هَلْ لَكَ مِنْ أُمٍّ قَالَ نَعَمْ فَقَالَ الْزَمْهَا فَإِنَّ الْجَنَّةَ عِنْدَ رِجْلِهَا

‘হে আল্লাহর রাসূল সা.! আমি জিহাদে যেতে ইচ্ছুক। আমি আপনার নিকট পরামর্শ নিতে এসেছি। তখন রাসূল সা. জিজ্ঞেস করলেন, তোমার মা আছে কি? লোকটি বললেন, হ্যাঁ।
রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বললেন, “তুমি তা জড়িয়ে থাকো (অর্থাৎ তার সেবা করো), কেননা তাঁর পায়ের নিকটেই জান্নাত রয়েছে।” [আহমাদ, নাসাঈ, মিশকাত হা/৪৯৩৯; সহীহুল জামে‘ হা/১২৪৯, সহীহু তারগীব ওয়াত তারহীব।]

🔰 অন্য বর্ণনায় এসেছে, আবু উমামা (রাঃ) হ’তে বর্ণিত এক ব্যক্তি রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম এর খিদমতে হাযির হয়ে বললেন,
يَا رَسُولَ اللهِ مَا حَقُّ الْوَالِدَيْنِ عَلَى وَلَدِهِمَا قَالَ هُمَا جَنَّتُكَ وَنَارُكَ
“হে আল্লাহর রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম, সন্তানের উপর পিতামাতার কি হক? তিনি বললেন, “তারা উভয়ে তোমার জান্নাত ও জাহান্নাম’।[ইবনু মাজাহ, মিশকাত হা/৪৭২৪।] অর্থাৎ পিতামাতার সেবা করা জান্নাতে যাওয়ার একটি মাধ্যম।

❌ “মায়ের পদতলে সন্তানের জান্নাত” মর্মে দুটি হাদীস আছে সেগুলো সহীহ নয়। যথা:

((الجنة تحت أقدام الأمهات)). وفي لفظ: ((الجنة تحت أقدام الأمهات، مَنْ شِئن أدخلن، ومَن شِئن أخرجن!))
“মায়ের পদতলে সন্তানের বেহেশত।” অন্য শব্দে “মায়ের পদতলে সন্তানের বেহেশত যাকে খুশি জান্নাতে প্রবেশ করাবে আর যাকে খুশি বের করবে।” এই শব্দে বর্ণিত হাদীসটি মুহাদ্দিসদের মতানুসারে যঈফ (দুর্বল) আর কারো মতে মউযু (বানোয়াট)।
তবে ‘মায়ের পায়ের নিকট জান্নাত’ এর মমার্থটি পূর্বোল্লেখিত হাদীসদ্বয়ের আলোক সহীহ।
আল্লাহু আলাম
✒✒✒✒✒
*উত্তর প্রদানে:*
আব্দুল্লাহিল হাদী বিন আব্দুল জলীল
দাঈ, জুবাইল দাওয়াহ সেন্টার , সৌদি আরব
https://www.facebook.com/AbdullaahilHadi

এ সম্পর্কিত অন্যান্য পোস্ট

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Close