About the author

Related Articles

২ Comments

  1. 1

    Nurun Nassa

    Muslim kintu benamaji nikot attiyo k ki jakat deya jabe???

    Reply
    1. 1.1

      রুহুল আমিন বিন আব্দুল লতিফ

      *যাকাত সম্পর্কীত কয়েকটি প্রশ্নোত্তর*
      💰💵💰💴💷💰💵💰💵

      *❒ প্রশ্ন: বেনামাযী-ফাসিককে যাকাত দেয়া জায়েয আছে কি?*
      ➖➖➖➖➖
      উত্তর:
      যাকাতের আটটি খাতের একটি হল, গরীব -অসহায় মানুষ।( দেখুন সূরা তওবা: ৬০ নং আয়াত)

      সুতরাং যে কোন গরীব মানুষকে যাকাত দেয়া জায়েয। দ্বীনদার গরীব মানুষকে যাকাত দেয়া যেমন জায়েয আছে তেমনি ফাসেক বা পাপাচারে লিপ্ত বা আধা নামাযী ব্যক্তিকেও যাকাত দেয়া জায়েয আছে যদি তাকে এর মাধ্যমে পাপাচার থেকে ফিরিয়ে আনার আশা করা যায়। অনুরূপভাবে ইসলামের দিকে আকৃষ্ট করার উদ্দেশ্যে কোন কাফিরকেও যাকাত দেয়া জায়েয আছে।
      তবে নামাযী, দ্বীনদার, গরীব মানুষকে যাকাত দেয়ার ক্ষেত্রে অগ্রাধিকার দেয়া উচিত।
      আর এমন ব্যক্তিকে যাকাত দেয়া উচিৎ নয়, যার ব্যাপারে আশংকা থাকে যে, সে অর্থ হাতে পেলে গুনাহর কাজে ব্যায় করবে। আল্লাহ তাওফিকদান কারী।
      আল্লাহু আলাম।

      ✒✒✒✒
      *❒ কাফেরদেরকে যাকাত/ওশর দেয়া বৈধ*

      প্রশ্ন: আমরা ধানের যাকাত (ওশর) বের করি। সেখান থেকে সারা বছর ভিখারীদেরকে ভিক্ষা দেয়া হয়। তাদের মধ্যে মুসলিম-অমুসলিম (হিন্দু, সাওতাল ইত্যাদি) সকল শ্রেণীর মানুষ থাকে। এখন প্রশ্ন হল, এই যাকাতের ধান কি কাফেরদেরকে ভিক্ষা হিসেবে দেওয়া জায়েয আছে?
      ➖➖➖➖➖
      উত্তর: অমুসলিমদের সামনে ইসলামের উদারতা, সৌন্দর্য এবং মহানুভবতা প্রকাশ করা খুব গুরুত্বপূর্ণ। এটি তাদের অন্তরকে ইসলামের প্রতি আকৃষ্ট করার অন্যতম উপায়। সুতরাং ইসলামের দিকে আকৃষ্ট করার উদ্দেশ্যে অমুসলিমদেরকে যাকাত/ওশর দেয়া জায়েয রয়েছে। হতে পারে, এটি তার হেদায়ের ওসীলা হয়ে যাবে।
      আল্লাহ তাআলা যাকাত বণ্টনের আটি খাত নির্ধারণ করে দিয়েছেন। সেগুলোর মধ্যে একটি হল, কাফেরদের অন্তরকে ইসলামের দিকে আকৃষ্ট করা। (সূরা তওবা: ৬০)

      তবে এ ক্ষেত্রে শর্ত হল, সে ব্যক্তি যেন মুহারিব তথা মুসলিমদের সাথে যুদ্ধ লিপ্ত না হয়। আল্লাহ তাআলা বলেন:
      لَّا يَنْهَاكُمُ اللَّـهُ عَنِ الَّذِينَ لَمْ يُقَاتِلُوكُمْ فِي الدِّينِ وَلَمْ يُخْرِجُوكُم مِّن دِيَارِكُمْ أَن تَبَرُّوهُمْ وَتُقْسِطُوا إِلَيْهِمْ ۚ إِنَّ اللَّـهَ يُحِبُّ الْمُقْسِطِينَ
      “দ্বীনের ব্যাপারে যারা তোমাদের বিরুদ্ধে লড়াই করেনি এবং তোমাদেরকে দেশ থেকে বহিস্কৃত করেনি, তাদের প্রতি সদাচরণ ও ইনসাফ করতে আল্লাহ তোমাদেরকে নিষেধ করেন না। নিশ্চয় আল্লাহ ইনসাফকারীদেরকে ভালবাসেন।” (সূরা মুমতাহিনাহ: ৮)

      মোটকথা,ইসলামের দিকে আকৃষ্ট করার উদ্দেশ্যে কাফিরদেরকে ওশর/যাকাত প্রদান করা জায়েয ইনশাআল্লাহ।
      আল্লাহু আলাম।

      ✒✒✒✒
      *ব্যবসায় ইনভেস্টকৃত অর্থ বা প্রদত্ব ঋণের টাকার যাকাত কে দিবে?*

      ❒ প্রশ্ন : কেউ যদি ব্যবসার জন্য কাউকে এই চুক্তিতে টাকা দেয় যে, সে এ টাকা ব্যবসায় ইনভেস্ট করবে। আর যখন যেমন লাভ হয় সেটা নিবে। কিন্ত মুল টাকাটা জমা থাকবে। এখন এ মূল টাকার উপর কি যাকাত দিতে হবে?
      ➖➖➖➖➖
      উত্তর :- কারো টাকা যদি অন্যের নিকট জমা থাকে (সেটা ঋণ হোক অথবা ব্যবসার জন্য হোক) তাহলে মূল মালিক উক্ত টাকার যাকাত আদায় করবে।
      তবে যদি উক্ত টাকা ফেরত না পাওয়ার আশংকা করে তাহলে উক্ত টাকার যাকাত আদায় করা আবশ্যক নয়। অবশ্য যদি পরবর্তীতে তা ফেরত পায় তাহলে অতীতে যত বছরের যাকাত আদায় করা হয় নি সবগুলোর একসাথে যাকাত বের করতে হবে। আল্লাহু আলাম।

      ✒✒✒✒

      ❒ *প্রশ্ন: যাকাতের অর্থ মাদরাসায় দিলে বেশি সওয়াব হবে না কি অসহায় বিধবা মহিলাকে দিলে বেশি সওয়াব হবে?*
      ➖➖➖➖➖
      উত্তর:
      যাকাতের হকদার হিসেবে আল্লাহ তাআলা গরীব-অসহায় মানুষের কথা সর্বপ্রথম উল্লেখ করেছেন। সুতরাং তাদের কথাই আমাদের সবার আগে ভাবা উচিৎ। তবে পরিস্থিতির আলোকে আগে-পরে করা যায়। যদি দেখা যায়, কোন বিধবা মহিলা আর্থিত অটনে থাকার কারণে খুব কষ্টে জীবন-যাবন করছে এবং তাঁর খোঁজ-খবর নেয়ার মত কেউ নাই অথচ মাদরাসার গরীব শিক্ষার্থীদের চলার মত ব্যবস্থা আছে তাহলে বিধবা মহিলাকেই অগ্রাধিকার দেয়া কতর্ব্য। এ ক্ষেত্রে বেশি সওয়াব হবে।
      আর যদি দেখা যায়, বিধবা মহিলার জীবন চলার মত পর্যাপ্ত অর্থকড়ি বিদ্যমান আছে কিন্তু কোন এতিমখানা বা মাদরাসার গরীব ছেলে/মেয়েরা আর্থিক সংকটে পড়ে তাদের জীবন ঝুঁকির মুখে পড়ে গেছে তাহলে সে ক্ষেত্রে মাদরাসার গরিব ছেলে/মেয়েদেরকে অগ্রাধিকার দিতে হবে।
      মোটকথা যার প্রয়োজন বেশি তাকে আগে সাহায্য করা প্রয়োজন এবং এটাই উত্তম।
      আল্লাহু আলাম।
      —————
      *উত্তর প্রদানে:*
      শাইখ আব্দুল্লাহিল হাদী বিন আব্দুল জলীল
      দাঈ, জুবাইল দাওয়াহ এন্ড গাইডেন্স সেন্টার.ksa

      Reply

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।